মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৬ অক্টোবর ২০১৬

সাময়িক বীমা (লাভবিহীন) প্ল্যান-৫১

ঋণ গ্রহীতার অকাল মৃত্যুতে বন্ধকী সম্পত্তি রক্ষায় বা প্রিয়জনকে ঋণের দায় থেকে মুক্ত রাখতে অল্প প্রিমিয়ামের এ প্রকার সাময়িক বীমার অবদান অসীম। স্থাবর সম্পত্তি গচ্ছিত রেখে ব্যাংক বা অন্য কোন অর্থ লগিড়বকারী প্রতিষ্ঠানের নিকট থেকে ঋণ গ্রহণ করে থাকলে এবং ঋণ গ্রহণের প্রমাণক দাখিল করলেই কেবলমাত্র এই পরিকল্পনার আওতায় এক বছর মেয়াদের জন্য বীমা পলিসি গ্রহণ করা যায়। তবে বেশী মেয়াদের জন্য পলিসি চালু রাখতে হলে মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৫ দিন পূর্বে “সুস্বাস্থ্যের প্রমাণক” দাখিল করে এবং প্রযোজনীয প্রিমিয়াম জমা দিয়ে পলিসি পরবর্তী বছরের জন্য নবায়ন করা যায়। পলিসির মেয়াদ শেষ হওয়ার পর পরবর্তী বছরের জন্য ইহা চালু রাখতে হলে বীমা গ্রাহকের নিজ ব্যয়ে ডাক্তারী রিপোর্ট দাখিল করতে হবে এবং প্রয়োজনীয় প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে। পলিসি নবায়নের সময় বয়স অনুসারে প্রিমিয়ামের হার নির্ধারিত হবে। ডাক্তারী পরীক্ষা “উন্নতমান” শ্রেণীভূক্তদের বেলায় সর্বোচ্চ ৫৫ বছর বয়স পর্যন্ত এই বীমা গ্রহণ করা যায়। ডাক্তারী পরীক্ষার ব্যয় অবশ্যই বীমা গ্রাহককে বহন করতে হবে। এই পরিকল্পনার অধীনে এক বছর বা তার আগে বীমাগ্রাহকের মৃত্যু হলে বীমাকৃত টাকা দেয়। বীমাকারী বেঁচে থাকলে পরিশোধিত প্রিমিয়াম ফেরত দেয়া হয় না। প্রিমিয়ামের হার তুলনামূলকভাবে খুব কম। সমর্পণ মূল্য, পলিসি ঋণ এবং পরিশোধিত মূল্য ইত্যাদির মত সাধারণ সকল সুবিধা এই বীমাতে পাওয়া যায় না। প্রথম বছরের দেয় প্রিমিয়ামের সঙ্গে প্রতিত হাজারে ২ টাকা হারে স্ট্যাম্প করে (Stamp Duty) প্রদেয়। বার্ষিক কিস্তিতে প্রিমিয়াম দিতে হবে। বড় অংকের পলিসি কিংবা বার্ষিক প্রিমিযাম পদ্ধতির বেলায় কোনরূপ রেয়াত প্রদান করা হবে না। এই বীমার সঙ্গে কোন অতিরিক্ত সুবিধার বীমা (Supplementary Benefits)(দেয়া হয় না।


Share with :
Facebook Facebook